হলি আর্টিজান নিয়ে সিনেমা: লিগ্যাল নোটিশের জবাব দিলেন ফারুকী ও মহেশ ভাট

হলি আর্টিজান নিয়ে সিনেমা: লিগ্যাল নোটিশের জবাব দিলেন ফারুকী ও মহেশ ভাট


হলি আর্টিজান হামলার ঘটনা নিয়ে কোনো প্রকার চলচ্চিত্র, প্রামান্য চিত্র বা নাটক নির্মাণ না করতে পাঠানো লিগ্যাল নোটিশের জবাব দিয়েছেন ভারতীয় চলচ্চিত্রকার মহেশ ভাট ও বাংলাদেশি নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। অবিন্তা কবির ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং সাধারণ সম্পাদক মিসেস রুবা আহমেদের পক্ষে গত মাসে তাদের এই নোটিশ পাঠায় ল’ফার্ম ‘লিগ্যাল কাউন্সেল’র দুই সত্ত্বাধিকারী ব্যারিস্টার ওমর এইচ খান ও ব্যারিস্টার মিতি সানজানা।

‘লিগ্যাল কাউন্সেল’র অন্যতম সত্ত্বাধিকারী ব্যারিস্টার মিতি সানজানা যমুনা নিউজকে জানান, হলি আর্টিজানের মর্মান্তিক ঘটনায় মেয়ে অবিন্তা কবিরকে হারিয়েছেন আমাদের মক্কেল রুবা আহমেদ। ওনাদের মেয়েকে নিয়ে কোনো চলচ্চিত্র বা কোনো ধরনের ভিজ্যুয়াল নির্মাণ হোক সেটি তারা চান না। সেজন্য যারা এ বিষয়ে চলচ্চিত্র বা ভিজ্যুয়াল ডকুমেন্টেশন নির্মাণের জন্য করছেন তাদের আমরা আমাদের মক্কেলের অবস্থান জানিয়ে দিয়েছি। মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এবং মহেশ ভাট আমাদের লিগ্যাল নোশিটের জবাব দিয়েছেন। তারা নিশ্চিত করেছেন এমন কিছু তারা রাখবেন না। যদি থেকে থাকে তবে সেটি কর্তন করবেন। মহেশভাটের পক্ষ থেকে এজন্য দুঃখ প্রকাশ করা হয়েছে। অন্যদিকে, ফারুকী বলেছেন তিনিও অবিন্তার পরিবারের প্রতি সহানুভূতিশীল। আমরা তাদের জবাবে সন্তুষ্ট।

shatranjicraft.com

এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ৩টায় গুলশানে ‘লিগ্যাল কাউন্সেল’-র অফিসে প্রেস ব্রিফিংয়ে বিস্তারিত জানানো হবে।

ব্যারিস্টার মিতি সানজানা জানান, আমরা সকল সম্মানিত প্রযোজক, পরিচালক, অভিনেতা, কলাকুশলী, মিডিয়া সংস্থা, মিডিয়া বিতরণকারী সংস্থা, লেখক, ক্লিপ-লেখকগণকে হলি আর্টিজানের ঘটনাকে তুলে ধরে বা অবিন্তা কবিরের প্রত্যক্ষ বা অপ্রত্যক্ষ সাদৃশ্যতা রয়েছে এমন কোনো চরিত্র তুলে ধরে যেকোনো প্রকার পূর্ণ বা স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র, টেলিফিল্ম, নাটক, নাটিকা, উপন্যাস, গল্প, ইত্যাদির রচনা, প্রযোজনা, পরিচালনা, বিতরণ, বিপণন, উপস্থাপন, প্রকাশনা, অভিনয় ইত্যাদি থেকে বিরত থাকার অনুরোধ জানিয়েছি। গোটা বিষয়টা হয়তো আমরা আটকাতে পারবো না। তবে অবিন্তা কবিরের সাথে সদৃশ কিছু থাকলে আমরা যথাযথ আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। কারণ সেটি ভিকটিমের পরিবারের মাঝে দুর্ঘটনার করুণ এবং কষ্টদায়ক স্মৃতিগুলােকেই আবার জাগিয়ে তুলবে, যা অবিন্তার মা এবং তার পরিবার প্রতিনিয়ত ভুলে থাকার জন্য সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন।

‘লিগ্যাল কাউন্সেল’র পক্ষ থেকে বাংলাদেশের চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীসহ শনিবার বিকেল সিনেমার বাংলাদেশি প্রযোজক জাজ মাল্টিমিডিয়া ও জার্মানের প্রযোজক টেন্ডেম প্রডাকশন, ভারতের তিন চলচ্চিত্রকার মহেশ ভাট, অগ্নিদেব চ্যাটার্জি, ও গুলপানাকেও নোটিশ দেয়া হয়েছিল। এরা প্রত্যেকেই হোলি আর্টিসানের ঘটনাকে কেন্দ্র করে চলচ্চিত্রসহ নানা রকম নির্মাণ করেছেন কিংবা প্রস্তুতি নিয়েছেন।

উল্লেখ্য, হলি আর্টিজান ট্র্যাজেডি নিয়ে নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর চলচ্চিত্র ‘শনিবার বিকেল’ ইতিমধ্যেই সেন্সর বোর্ডে আটকে গেছে।





Source link

shatranjicraft.com